রুটি মেকার দিয়ে রুটি তৈরী হোক ২ সেকেন্ডেই!

রুটি মেকার দিয়ে রুটি তৈরী হোক ২ সেকেন্ডেই!

Published In: ROOT

রুটি মেকার দিয়ে রুটি তৈরী একেবারেই সহজ কাজ। এমনকি ২/৩ বছরের বাচ্চাও পারবে এটি দিয়ে সুন্দর, পারফেক্ট গোল এবং খুব পাতলা রুটি তৈরী করতে। মজার বিষয় হচ্ছে যেখানে ভারতীয় ইলেক্ট্রিক রুটি মেকার গুলি ভালো করে রুটি বানাতেই সক্ষম নয় এবং শুধুমাত্র কাঁচা আটার রুটি তৈরী করে, সেখানে দেশীয় এই ম্যাজিক রুটি মেকার একাধারে সিদ্ধ আটার রুটি, কাঁচা আটার রুটি, চালের গুড়ার রুটি এবং ময়দার রুটি তৈরী করতে পারে। আবার এক ম্যাশিনেই রুটি, পরটা, লুচি, অন্থনের রুটি, সিঙ্গাড়ার রুটি, সমুচার রুটি সহ বিভিন্ন কিছু বানাতে পারবেন।

রুটি মেকার নিয়ে কিছু বলবার আগে অবশ্যই বলে নিতে হয় যে রুটি আমাদের জন্য কত জরুরী। স্বাস্থ্য সচেতন প্রতিটি মানুষের জন্যই রুটি খাওয়া অত্যাবশকীয়। কেননা ভাতে যে পরিমানে গ্লুকোজ থাকে, তা আমাদের দেহের মেদকে আরও বাড়িয়ে দেয়, আমাদের আরও মুটিয়ে দেয়। কিন্তু অপর দিকে রুটিতে এই গ্লুকোজের পরিমান খুব কম থাকে বলেই ডাক্তাররা সব সময় সকলকে রুটি খাবার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু সমস্যার শুরু হয় রুটি তৈরী করা দিয়ে। রুটি তৈরীতে মোট তিনটি ধাপ, প্রথমে রুটির জন্য আটা জ্বাল দিতে হয়, রুটি বেলতে হয় এবং শেষে রুটি তাওয়াতে বা ফ্রাইং প্যানে সেকে নিতে হয়। এর মধ্যে সব থেকে কঠিন কাজ হচ্ছে রুটি বেলে নেওয়া। যারা একবার দুবার চেষ্টা করেছন তারা নিশ্চই জানেন যে রুটি সম্পূর্ণ গোল করা কতটা কষ্টের এবং কতটা প্রাক্টিসের প্রয়োজনের। আর যারা নিয়মিত রুটি বানান তাদের আর বলে দেওয়া লাগবে কি যে কাজটি কত কষ্টের?

রুটি মেকার আসলে কি এবং কবে থেকে?

আগের আলোচনার থেকে সহজেই বোধ গম্য যে আমাদের দৈনিক রুটি তৈরীর সমস্যার হাত থেকে মুক্তি দেওয়াই আসলে রুটি মেকারের কাজ। রুটি মেকারের ধারণা প্রথমে আসে ম্যাক্সিকো থেকে। সেখানে রুটিকে তারা tortilla বলে থাকে এবং রুটি মেকারকে tortilla press বলে। ম্যাক্সিকান খাবারের প্রায় প্রতিটিতেই এই রুটি বা tortilla এর প্রয়োজন পড়ে। বহু বছর থেকেই এই রুটি মেকার বা tortilla press এর প্রচলন আছে। তবে YouTube এ সর্ব প্রথম ২০০৭ সালে কাঠের রুটি মেকারের একটি ভিডিও পাওয়া যায় (ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন)। ভিডিওর বর্ণনায় লেখা ছিলো যে এর প্রস্তুত কারক কোথাও এমন একটি ডিভাইস দেখেছিলেন এবং তিনি নিজেই ঐ কাঠের রুটি মেকার / tortilla press টি তৈরী করেন। এই ভিডিও প্রকাশ পাবার মাত্র ১ মাসের মধ্যেই ভারতীয় একজন মহিলা একটি ইলেক্ট্রিকের রুটি মেকারের ভিডিও প্রকাশ করেন।

এর পরের ইতিহাস সংক্ষিপ্ত, বাংলাদেশে একজন বেক্তি ২০১১ সালে এটি তৈরীর কাজ হাতে নেন। এর পর বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানই রুটি মেকার তৈরী করতে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় বাজারে আসে Magic Ruti Maker। বর্তমানে এই ম্যাজিক রুটি মেকার ক্রেতাদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

রুটি মেকার দিয়ে যা যা করা যায়ঃ

রুটি মেকার দিয়ে রুটি তৈরী একেবারেই সহজ কাজ। এমনকি ২/৩ বছরের বাচ্চাও পারবে এটি দিয়ে সুন্দর, পারফেক্ট গোল এবং খুব পাতলা রুটি তৈরী করতে। মজার বিষয় হচ্ছে যেখানে ভারতীয় ইলেক্ট্রিক রুটি মেকার গুলি ভালো করে রুটি বানাতেই সক্ষম নয় এবং শুধুমাত্র কাঁচা আটার রুটি তৈরী করে, সেখানে দেশীয় এই ম্যাজিক রুটি মেকার একাধারে সিদ্ধ আটার রুটি, কাঁচা আটার রুটি, চালের গুড়ার রুটি এবং ময়দার রুটি তৈরী করতে পারে। আবার এক ম্যাশিনেই রুটি, পরটা, লুচি, অন্থনের রুটি, সিঙ্গাড়ার রুটি, সমুচার রুটি সহ বিভিন্ন কিছু বানাতে পারবেন।

রুটি মেকার দিয়ে যেভাবে রুটি তৈরী করবেনঃ

যেহেতু আমরা বাসাবাড়িতে সিদ্ধ আটার রুটিই বেশী খাই, তাই আজকে আলোচনা করবো কি করে সিদ্ধ আটার রুটি তৈরী করতে হবে। রুটি মেকার দিয়ে রুটি তৈরী করবার জন্য প্রথমেই আপনাকে আটা সিদ্ধ করে নিতে হবে (যদিও আপনি চাইলেই কাঁচা আটার রুটিও তৈরী করতে পারেন)।

একটি পাত্রে পরিমান মত পানি নিন, এবং প্রতি ৮-১০ টি রুটির জন্য মাত্র আধা চা চামচ তেল দিয়ে দিন। এতগুলি রুটির মধ্যে এতটুকু তেল যদিও কোন সমস্যাই না, তবে বেশী স্বাস্থ্য সচেতন হলে সয়াবিন তেলের পরিবর্তে সরিষার তেলও দিতে পারেন। এবার পানি ফুটে গেলে তার মধ্যে আটা ঢালতে থাকুন এবং নাড়তে থাকুন। এভাবে এক সময় সব পানির সাথে আটা মিশে মোটামুটি শক্ত খামির তৈরী হবে। এবার চুলা থেকে এই খামির নামিয়ে ফেলুন।

এবার হাত দিয়ে খামিরের দলাকে পাকাতে এবং চটকাতে থাকুন, একটু সাবধানে করবেন, কারণ খামিরটি তখনও গরম। তবে এই খামির ধরবার জন্য হাতে পানির বা কাঁচা আটার গুড়া ব্যবহার করবেন না। শক্ত হয়ে এলে এবার একটি রুটি পরিমান আটার কাই আলাদা করে নিন।

এবার পালা রুটি তৈরীর। আপনাকে যা করতে হবে তা হল আপনার ম্যাজিক রুটি মেকারের মধ্যেখানে যে কোন আকারে ঐ কাই বসিয়ে দিতে হবে, এবার রুটি মেকারের অপর অংশ দিয়ে ঢেকে দিতে হবে এবং হাতল দিয়ে ২/৩ সেকেন্ডের জন্য চেপে ধরতে হবে। ব্যাস এবার ছেড়ে দিন। দেখবেন আপনার হাতেই সুন্দর পারফেক্ট গোল রুটি তৈরী হয়ে গেছে।

ব্যাস, এবার তাওয়া বা ফ্রাইং প্যান গরম করে তাতে ভেজে নিন। তাওয়াতে ভাজতে চাইলে হাতে সামন্য কাঁচা গুড়া লাগিয়ে তারপর সেকে নিন। ব্যাস, তৈরী হয়ে গেলো আপনার হাতের রুটি। এবার পরিবারের সবাইকে নিয়ে উপভোগ করুন আপনার নিজের হাতে বানানো সুন্দর গোল পাতলা রুটি।

রুটি মেকার কোথায় পাবেন?

আমি নিশ্চিত যে উপরের কথা গুলি পড়ে এবং ভিডিও দেখে আপনি এত সময় ভাবা শুরু করেছেন যে কোথায় পাবো এই যাদুর জিনিষ? আপনার জন্য সুখবর হচ্ছে WOWzer নামে বাংলাদেশী ইকমার্স আপনারই প্রিয় সম্পূর্ণা যৌথ ভাবে এই রুটি মেকারের উৎপাদন এবং বিক্রি করছে। রুটি মেকার অর্ডার করতে আপনি এক্ষুনি ফোন করতে পারেন 01711 305 889 নম্বরে।

রুটি মেকার অর্ডার করবেন যেভাবেঃ

রুটি মেকার অর্ডার করতে ফোন করুনঃ 01711 305 889

yW9Ov1YcRxQ
Tags: